বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়। ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়।

আসসালামু আলাইকুম। আজকে আমরা বলব বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়। আপনি যদি ইউরোপ এ যেতে চান তাহলে অভষ্যই মনযোগ সহকারে পড়বেন।

ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ বা এশিয়ার অনেক মানুষ এর সপ্ন ইউরোপ এ যাওয়া। উন্নত জীবন এর জন্য অনেক মানুষ তার জীবন এর রিস্ক নিয়ে অবৈধ পথে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা করে। অনেক মানুষ আবার দালাল ধরে লাখ লাখ টাকা খরচ করে ইউরোপ যায়। আমরা আজকে ইউরোপ যাওয়া যায় এরকম বেস কিছু পদ্ধিতি নিয়ে আলোচনা করব। ইউরোপ এ অবেধ ভাবে কিংবা দালাল এর মাধ্যেমে যাওয়া যায়। আমরা সেগুলো নিয়ে আলোচনা করব না। আমরা আলোচনা করব নিজে নিজে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায় নিয়ে।

কি কি ভিসায় ইউরোপ যাওয়া যায়।

আমরা যদি ইউরোপ যেতে চাই আমাদের আগে জানা দরকার আমরা কোন কোন ভিসায় ইউরোপ যেতে পারব। তাহলে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারব যে আমাদের কোন ভিসায় যাওয়া উচিৎ। ইউরোপ এ যাওয়ার জন্য বা যেকোন দেশে যাওয়ার জন্য অনেক ধরনের ভিসা রয়েছে। একজন সাধারন মানুষ কি কি ভিসায় ইউরোপ যেতে পারবে সে টাইপ গুলো নিচে দেওয়া হল।

ওয়ার্ক ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসা, বিজনেস ভিসা, সিজনাল ওয়ার্ক ভিসা, ইনভেস্টর ভিসা, জব সিকার ভিসা, মেডিক্যাল ভিসা, টুরিষ্ট ভিসা।

এই ভিসা টাইপ গুলো ছাড়া ও অনেক ভিসা রয়েছে তার মধ্যে অনেক গুলো তে সাধারন মানুষ যেতে পারবে না। আমাদের দেশ থেকে সাধারনত ওয়ার্ক আর স্টুডেন্ট ভিসায় সবচেয়ে বেশি মানুষ ইউরোপ এ যায়। এছাড়াও অনেক মানুষ ভিজিট তথা টুুরিস্ট ভিসায় ও যায়।

ইউরোপ ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়।

আমরা যদি ওয়ার্ক বিছায় ইউরোপ যেতে চাই প্রথমে আমাদেরকে একটা জব কালেক্ট করতে হবে। জব অফার লেটার পাওয়ার পর সেটাকে ব্যবহার করে আমাদের এম্বাসিতে আবেদন করতে হবে। আপনি যদি জব খুঁজতে চান তাহলে প্রত্যেকটা দেশেরই প্রায় সকল দেশের সরকারি ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে জব খুঁজতে পারেন। এই পোস্টে সকল দেশের সরকারি জব ওয়েবসাইটের লিংক দেওয়া পসিবল নয়। আমি নিচে তিনটি ভেরিফাইড লিংক দিচ্ছি যেগুলোর মাধ্যমে আপনি যেকোনো দেশের জব খুঁজতে পারবেন। পুরো পৃথিবীতে লাখ লাখ মানুষ এই মিডিয়াগুলো ব্যবহার করে জব খুঁজে থাকে। এগুলো যেহেতু কমন এবং সকল দেশের লোকেশন অনুযায়ী আপনি জব সার্চ করতে পারবেন তাই এই তিনটাতে আপনি যদি ভাল করে সময় দেন এখান থেকে জব খুঁজে পেতে পারবেন।

Glassdoor: https://www.glassdoor.com/
Indeed: https://www.indeed.com/
Linkedin: https://www.linkedin.com/

ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

এই ওয়েবসাইট গুলোতে গিয়ে আপনি জব আবেদন করার জন্য আপনার একটি প্রফেশনাল সিভি এবং কভার লেটার দরকার হবে। এছাড়াও আপনি যদি এর সাথে আপনার অভিজ্ঞতার সনদ এবং আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদে এড করেন সে ক্ষেত্রে আপনি অন্যদের চাইতে এগিয়ে থাকবেন। আবেদন করার পর আপনাকে যদি তারা হায়ার করে সেক্ষেত্রে আপনাকে ইমেইল করে জব অফার লেটার দিয়ে দিবে। যেহেতু পুরো পৃথিবী থেকে অনেক মানুষ এখানে আবেদন করে তাই আপনাকে ধৈর্য নিয়ে অনেকগুলো যাবে আবেদন করতে হবে। এভাবে আপনি একটি জব ম্যানেজ করতে পারলে আপনি আশা করা যায় ভিসা পেয়ে সেই দেশে মুখ করতে পারবেন খুবই কম খরচে।

স্টুডেন্ট ভিসায় ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়।

আমরা যদি স্টুডেন্ট ভিসায় কোন দেশে যেতে চাই তাহলে প্রথমে আমাদেরকে যে কোন একটি কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে অফার লেখা নিতে হবে। এর জন্য আমাদেরকে কলেজে বা বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে হবে। আপনি আপনার সকল কাগজপত্র দিয়ে আবেদন করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে বিশ্বের প্রায় সকল দেশের বেশিরভাগ কলেজে অনলাইনে আবেদন করা যায়। অনেক কলেজে সাধারণ ডকুমেন্ট দিয়ে আবেদন করা যায়। অনেক কলেজ বা ইউনিভার্সিটি রয়েছে যেখানে আপনাকে আবেদন করার জন্য আপনার কাগজপত্র নোটারি এবং ফরেন মিনিস্ট্রি থেকে এটাস্টেড করাতে হয়।

আপনি যে দেশে আবেদন করবেন প্রথমে এসে এই দেশের কলেজ গুলো লিস্ট করবেন তারপর আপনি কলেজগুলোতে গিয়ে তাদের রিকোয়ারমেন্ট গুলো দেখে নেবেন। আপনি কোন বিষয়ে এবং কোন ডিগ্রীর জন্য আবেদন করতে চান সেই ডিগ্রীর কি রিকোয়ারমেন্ট হয়েছে সেগুলো চেক করে নেবেন। আপনি যেই কলেজে আবেদন করবেন সেই কলেজে আবেদন ফ্রি রয়েছে কিনা সেটাও চেক করে নেবেন। আপনি প্রত্যেকটা কলেজের ওয়েবসাইটে গেলেই বিস্তারিত তথ্য দেখতে পাবেন। এর বাইরেও যদি আপনার কোন তথ্য জানার থাকে সেক্ষেত্রে আপনি তাদের সাথে ইমেইলে যোগাযোগ করতে পারবেন। আপনি আবেদন করার পর যে কোন একটা কলেজ থেকে আপনার অফার লেটার পাই পেলে আপনি ভিসার জন্য আবেদন করে সেই দেশে যেতে পারবেন।

ইউরোপের কোন কোন দেশের এম্বাসি বাংলাদেশে আছে।

ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

বর্তমান এ ভারত এর ভিসা হয়ে গেছে সোনার হরিন এর মতো। ইউরোপ এর ভিসার চাইতে যেন ভারত এর ভিসা পাওয়া কঠিন হয়ে গেছে। আমাদের বাংলাদেশ এ অনেক দেশের এম্বাসি নেই। তাই অনেক দেশ এর এম্বাসি ফেস করার জন্য আমাদের ভারত এ যাওয়া লাগে। ভারত এর ভিসা না পাওয়ার কারনে অনেক মানুষ ওয়ার্ক পারমিট পাওয়ার পর ও এম্বাসি ফেস করতে পারে না। তাই আমাদের জন্য ভালো হবে যদি বাংলাদেশ এ এম্বাসি আছে এমন কোন দেশে এপ্লাই করি। তাহলে আমরা সহজে ওয়ার্ক পারমিট পেলে এম্বাসি ফেস করতে পারব। ইউরোপ এর সেনজেন এর দেশ গুলোর মধ্যে ৭-১০ টি দেশের এম্বাসি বাংলাদেশ এ রয়েছে। আপনি ই দেশ গুলোতে যাওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। ইউরোপ এর যেসকল দেশ এর এম্বাসি বাংলাদেশ এ রয়েছে এরকম দেশ গুলো হলো।

ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইটালি , স্পেন, সুইডেন, সুইজাল্যান্ড, নরওয়ে,,, এগুলো হচ্ছে সেনজেন দেশ অনেক নন সেনজেন দেশ এর এম্বাসি ও বাংলাদেশ এ আছে। তাছাড়া অনেক দেশ এর ভিসা হচ্ছে অনলাইন ভিসা। আপনি যে দেশে যেতে চান। সে দেশে এর ভিসা কিভাবে দেয় আগে থেকে দেখে নিতে পারেন।

আপনি স্টুডেন্ট ভিসয়ে যান কিংবা আপনি ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় যান আপনি যদি বাংলাদেশেতে এম্বাসি রয়েছে এরকম দেশে আবেদন করেন তাহলে বাংলাদেশ থেকে আপনি যেতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনি যদি ভিসা নাও পান সে ক্ষেত্রে আপনার ইন্ডিয়া যাওয়ার খরচটা বেঁচে যাবে। যারা বাংলাদেশে এম্বাসি নিয়ই কিন্তু ভারতে এম্বাসি রয়েছে এরকম দেশে আবেদন করে তাদের ভারতে গিয়ে কয়েক মাস পর্যন্ত থাকা লাগে এবং সে ক্ষেত্রে অনেক টাকার খরচ হয়। তাই আপনারা চাইলে এই দেশগুলো চয়েজ লিস্টে রাখতে পারেন অথবা ইউরোপের যে সকল দেশ রয়েছে যাদের এম্বাসি বাংলাদেশ আছে সেসকল দেশে আবেদন করতে পারেন। তাহলে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায় আপনি পেয়ে যাবেন।

ইউরোপের আরো একটি বিশ্বকাপ রয়েছে জব সিকার ভিসা যার মাধ্যমেও সহজে ইউরোপ যাওয়া যায়। জব শেখার ভিসার জন্য অগ্রিম কোন অফার লেটার বা ওয়ার্ক পারমিট এর প্রয়োজন হয় না আপনি সেখানে গিয়ে জব খুঁজতে পারবেন। ওয়ার্ক পারমিট ভিসা, জব সিকার ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসার বাহিরে যে সকল বিষয়গুলো রয়েছে সেগুলোর মাধ্যমে ইউরোপ চাওয়া অনেকটা কঠিন। আপনি চাইলেই খুব সহজে টুরিস্ট ভিসা ইউরোপ যেতে পারবেন না এর জন্য আপনার অনেক বড় একটা টুরিস্ট থাকতে হবে। এজন্য আপনারা যারা ইউরোপে মুখ করতে চাচ্ছেন যদি আপনি স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে সবচেয়ে ভালো হবে আপনি স্টুডেন্ট ভিসায় চেষ্টা করুন। আর আপনি যদি ওয়ার্কার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ওয়ার্ক ভিসায় চেষ্টা করেন তাহলে আশা করা যায় আপনারা ইউরোপ যেতে পারবেন। ”ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায “ আশা করি এই পোষ্ট থেকে আপনারা অনেক কিছু জানতে পারছেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

Read More: সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার উপায়

Keyword: ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়, বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়, বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার নিয়ম, ইউরোপ ভিসা এজেন্সি বাংলাদেশ, ইউরোপ ভিসা প্রসেসিং,

Leave a Comment