জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়।জার্মানি কাজের ভিসা পাওয়ার উপায়।

আসসালামু আলাইকুম। আজকে আমরা আলোচনা করব জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়। জার্মানি পৃথিবীর যতগুলো উন্নত দেশ আছে তার মধ্যে অন্যতম। এখানের জীবন যাত্রার মান অনেক উচ্চ। পুরো পৃথিবীর অনেক দেশ থেকে জার্মানি তে কাজ করতে অনেক মানুষ আসে। আপনি যদি জার্মানি তে কাজ করতে যেতে চান তাহলে আপনাকে স্বাগতম। বর্তমান এ জার্মানি তে প্রচুর কর্মী প্রয়োজন। তাই তাদের দেশের সরকাল অভিবাসন নীতি আরো সহজ করেছে। এমনকি নতুন ভিসা প্রকল্প চালু করেছে। তাই আপনি যদি এই বিষয় জানতে চান সম্পূর্ন পড়ার অনুরোধ রইল।

জার্মানি কাজের ভিসা ২০২৪

জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়

জার্মানি কেন যাবেন?

জার্মানি ইউরোপের সেনজেন কান্ট্রি। এই দেশে গেলে বাকি ২৮+ দেশের এক্সেস আপনি পেয়ে যাবেন যেখানে আপনি কোন ভিসা ছাড়াই যেতে পারবেন। জার্মানিতে বেতন অনেক ভালো যেখান থেকে আপনি কয়েক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। জার্মানি অত্যন্ত শান্তিপ্রিয় একটি দেশ সেখানে আপনি খুবই শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে পারবেন। বর্তমানে জার্মানিতে প্রচুর কর্মী চাহিদা রয়েছে তাই আপনি যদি জার্মানি নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন তাহলে সহজে ভিসা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ওয়ার্ক ভিসায় জার্মানি যাওয়ার উপায়।

আমরা যদি কাজের বিষয়ে কোনো দেশে যেতে চাই প্রথমে আমাদেরকে একটা জব নিশ্চিত করতে হয়। আমরা চাইলে কোন দালাল কিংবা এজেন্সি ছাড়াও নিজে নিজে চেষ্টা করে একটা জব ম্যানেজ করতে পারি। বর্তমানে প্রত্যেকটা দেশেরই প্রায় অনলাইনে জব পোর্টাল রয়েছে । বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল সাইট হয়েছে যেখান থেকে আমরা জব সার্চ করতে পারি। নিচে কয়েকটি জব পোর্টালের লিংক দেওয়া হল।

linkedin: https://www.linkedin.com/
Indeed: https://www.indeed.com/
Glassdoor: https://www.glassdoor.com/

আপনি যখন এই সাইড গুলোর মাধ্যমে একটা জব পাবেন তখন আপনি ভিসার জন্য আবেদন করবেন। আমাদের জন্য আরো একটি সুখবর হচ্ছে জার্মানির ভিসা আপনি বাংলাদেশ থেকে করতে পারবেন এর জন্য আপনাকে ভারত কিন্তু অন্য দেশে যেতে হবে না। যার ফলে আমাদের অনেক খরচ বেঁচে যাবে এবং আমাদের অন্য একটি দেশের বিচার ঝামেলা নিতে হবে না।

অপরচুনিটি কার্ডে জার্মানি যাওয়ার উপায়।

আগেই বলেছিলাম যে জার্মানিতে বর্তমানে প্রচুর কর্মী সংকট রয়েছে। এই কর্মী সংকট মোকাবেলা করার জন্য ইউরোপের অন্যান্য অনেক দেশের মত জার্মানি নতুন একটি ভিসা প্রকল্প চালু করেছে। এই ভিসা প্রকল্পে আপনি কোন কাজ বা জব অফার লেটার ছাড়াই জার্মানি যেতে পারবেন শুধুমাত্র কয়েক লাখ টাকা খরচ করে। আপনি সেখানে এক বছরের জব সার্চ ভিসা পেয়ে যাবেন।

এর জন্য আপনার কিছু কোয়ালিফিকেশন থাকা লাগবে। আপনি নিচের লিংক গুলো থেকে Opportunity Card এর সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

Working in Germany with the Opportunity Card: https://chancenkarte.com/en/
Visa Navigator: https://digital.diplo.de/

যাদের বয়স ১৮ উপরে এবং ৫৮ এর নিচে। যারা কমপক্ষে অনার্সে পাস করেছেন । এর পাশাপাশি যারা কোন একটা কাজে অভিজ্ঞতা তারা খুব সহজে এই বিষয় জার্মানি যেতে পারবেন। যাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নেই কিন্তু কোন একটা কাজের উপর অনেক অভিজ্ঞতা রয়েছে তারাও চাইলে আবেদন করতে পারবে।

যাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নেই তাদের জন্য রয়েছে পয়েন্ট সিস্টেম। আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী পয়েন্ট পাবেন। যদি মিনিমাম ১০ এর মধ্যে ৬ পয়েন্ট পান তাহলে আপনারা এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। আপনি যদি পয়েন্ট ক্যালকুলেট করতে চান তাহলে গুগল এ সার্চ করলে আপনি এই অপশন পেয়ে যাবেন।

বাংলাদেশ থেকে জার্মানি যেতে কত সময় লাগে।

বাংলাদেশ থেকে জার্মানি যেতে কত সময় লাগবে। এটা নির্ভর করে আপনি কত তাড়াতাড়ি কাজ জোগাড় করতে পারেন তার উপর। আপনি একটি জব পাওয়ার পরে জার্মানি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন। আপনি যদি কোন এজেন্সি কিংবা দালালের মাধ্যমে না যান সে ক্ষেত্রে সম্পূর্ণটা নির্ভর করবে আপনার কাজ পাওয়ার উপর। আপনি জব পেলে দেখা যাবে যে তার কয়েক মাসের মধ্যে আপনি জার্মানি চলে যেতে পারবেন।

আপনি যদি অপরচুনিটি কার্ডে জার্মানি যেতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার খুব বেশি সময় লাগবে না কিংবা খুব বেশি অর্থের প্রয়োজন হবে না। তিন চার মাসের মধ্যেই আপনি জার্মানিতে পদার্পণ করতে পারবেন। অপরচুনিটি কাজকে বিদেশ যেতে হলে আপনাকে অবশ্যই জার্মানি যে রুলস গুলো রয়েছে সেগুলো মেনে তারপর যেতে হবে। আপনি যদি অপরচুনিটি কার্ডে যেতে চান তাহলে তাদের যে নিয়মগুলো রয়েছে সেগুলো তাদের ওয়েবসাইট থেকে ভালো করে দেখে নিবেন।

জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়


জার্মানি যেতে কত টাকা লাগে।

এটা নির্ভর করে কিভাবে আপনি জার্মানি যাবেন তার ওপর। আপনি যদি নিজে নিজে অপরচুনিটি কার্ডে জার্মানি যাবে সে ক্ষেত্রে আপনার দুই তিন লাখ টাকা খরচ হতে পারে। তবে এভাবে যদি আপনি জার্মানিতে যেতে চান তাহলে এক বছরের জন্য আপনাকে সেখানে একটা ব্লক একাউন্ট তৈরি করতে হবে। এই টাকাগুলো আপনাকে তাদের দিতে হচ্ছে না কিন্তু টাকা হলে আপনার লাগবে। সেখানে আপনার একাউন্টে যে টাকা গুলো জমা করবেন সেগুলো প্রত্যেক মাসে মাসে আপনাকে দেয়া হবে সেখানে চলার জন্য যতদিন আপনি জব না পান। যেহেতু আপনাকে এক বছরের জন্য ভিসা দেওয়া হচ্ছে তাই এক বছর যাবত এই টাকাটা আপনাকে মাস হিসেবে দেওয়া হবে।

সেখানে আপনার ব্লক একাউন্টে ১৫ লাখ টাকার মত রাখতে হতে পারে। আপনি যদি কাজের ভিসা নিয়ে যেতে চান সেক্ষেত্রে আপনি নিজে নিজে প্রসেস করলে ৩-৪ লাখ টাকার মধ্যে যেতে পারবেন। আর আপনি যদি দালাল দিয়ে কাজ করেন সে ক্ষেত্রে তারা চাইলে আপনার থেকে ১৫ লাখ ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত দাবি করতে পারে। তারপর আপনি সেখানে গিয়ে ভালো কাজ পাবেন কিনা তাও অনেকটা অনিশ্চিত । তাই সবচেয়ে ভালো হবে আপনি যদি নিজে নিজে ভিসা প্রসেস করার চেষ্টা করেন।

জার্মানি তে যাওয়ার কিছু অসুবিধা।

যেখানে গেলে অনেকগুলো সুবিধা আপনি পাবেন সেখানে দুই একটা অসুবিধা থাকবে এটাই স্বাভাবিক। প্রথমত জার্মানির অনেক মানুষই ইংরেজিতে কথা বলতে পারলেও তারা তাদের দেশের ভাষাকে যথেষ্ট সম্মান করে যেন তারা জার্মান ভাষাটাকে অনেক বেশি প্রাধান্য দেয়। তা আপনি যদি জার্মানিতে খুব সহজে জব পেতে চান তাহলে কষ্ট করে আপনাকে জার্মান বাসার বেসিক অন্তত শিখতে হবে। সিটি শহরগুলোর বাহিরে কিন্তু আপনি বাসা না জানলে কাজ পেতে খুব কষ্ট হবে।

এছাড়া ইউরোপের বেশ কিছু দেশের তুলনায় আপনি যদি একটা নির্দিষ্ট অ্যামাউন্টের বেশি আয় করেন তাহলে জার্মানিতে আপনাকে মোটা অংকের ট্যাক্স দিতে হবে। আপনি এই বিষয়গুলো জানার পর আপনি সিদ্ধান্ত নিবেন আপনি জার্মানি যাবেন কিনা বা জার্মানিতে যাওয়ার আর কি কি অসুবিধা থাকতে পারে আপনি চাইলে সেটা নিয়ে একটু রিচার্জ করে নিতে পারেন। তাহলে আপনাপর জন্য সিদ্ধান্ত নিতে সহজ হবে।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

আশা করি আপনারা জার্মানিতে যাওয়ার প্রসেস গুলো বুঝতে পারছেন। এছাড়াও জার্মানিতে স্টুডেন্ট ভিসায় যাওয়া যায় সেটা নিয়ে অন্য একটা টপিক আলোচনা করা হবে। এ বিষয়ে যদি আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনারা সেটা কমেন্টে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ সবাইকে।

কিওয়ার্ড: জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়, জার্মানি কাজের ভিসা ২০২৪, জার্মানি ভিসা আবেদন ২০২৪, বাংলাদেশ থেকে জার্মানি যেতে কত সময় লাগে, জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়, জার্মানি যেতে কত টাকা লাগে ,জার্মানি যাওয়ার সহজ উপায়, অপরচুনিটি কার্ড, জার্মানি ভিসা আবেদন, জার্মানি ভিসা পাওয়ার উপায়, জার্মানি ভিসা খরচ,

Leave a Comment