কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024। কানাডা জব ভিসা খরচ কত টাকা।

আসসালামু আলাইকুম। আজকে আমরা কানাডা জব ভিসা নিয়ে আলোচনা করব। কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024। কানাডা জব ভিসা খরচ কত টাকা। কানাডা জব ভিসা খরচ ও আবেদন। কানাডা জব ভিসা নিয়ে আলোচনা করার আগে কানাডা নিয়ে আমরা সামান্য কিছু তথ্য  জেনে নেই।

কানাডা জব ভিসা ২০২৪। কানাডা জব ভিসা খরচ কত টাকা। কানাডা জব ভিসা খরচ ও আবেদন।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024

কানাডা দেশ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

আয়তন এর দিক থেকে কানাডা পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহওম দেশ। তবে এদেশের জনসংখ্যা খুব কম। কানাডা কে আপনি পৃথিবীর সবচেয়ে কম ঘনবসতির দেশ ও বলতে পারেন।কানাডার মোট আয়তন ৯৯,৮৪,৬৭০ বর্গ কি মি। কানাডার জনসংখ্যা মাএ ৪০ মিলিয়ন এর মত । কানাডা পৃথিবীর অন্যতম সুখী একটি দেশ।

 কানাডা জব ভিসা খরচ কত।

কানাডা যাওয়ার সপ্ন পৃথিবীর অনেক দেশের মানুষ এর। কানাডায় বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ স্টুডেন্ট ভিসায় আবারও অনেক মানুষ জব ভিসায় যায়। আজকে আমরা কানাডার জব ভিসা নিয়ে আলোচনা করব। কানাডা আপনি চাইলে দালাল এর মাধ্যমে যেতে পারেন। আবার আপনি চাইলে নিজে নিজে প্রসেস করে যেতে পারবেন। আপনি যদি নিজে নিজে যেতে পারেন তাহলে আপনার খরচ তিন থেকে চার গুন কম লাগবে। আপনি যদি কানাডায় যেতে চান তাহলে আপনার সবার প্রথম একটি জব খুঁজে পেতে হবে।

আপনি যদি নিজে নিজে প্রসেস করেন তাহলে আপনাকে ই জব খুঁজে বের করতে হবে। আর আপনি যদি দালাল এর মাধ্যমে যেতে চান তাহলে আপনার হয়ে দালাল আপনার জব অফার লেটার এনে দিবে। দালাল এর খরচ কত নিবে তা নির্দিষ্ট নয়। কেউ ১০ লক্ষ টাকা ও নিতে পারে কেউ ১৫/২০ লক্ষ টাকা ও নিতে পারে। আমরা আলোচনা করব কিভাবে নিজে নিজে প্রসেস করবেন।

আমাদের প্রথম ধাপ হচ্ছে একটা জব খুজে বের করতে হবে। কানাডা তে জব খুঁজে বের করার জন্য একটা সরকারি ওয়েবসাইট আছে। আপনি এই সাইট এ জব আবেদন করে একটা অফার লেটার আনতে হবে।

কানাডা সরকারি জব সাইট: https://www.jobbank.gc.ca/home
কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024

এই সাইট এ গিয়ে আপনি আপনার পছন্দ ও যোগ্যতা অনুযায়ী জব এ আবেদন করবেন। আপনার আবেদন করার জন্য বেশ কিছু কাগজ লাগবে। যেমন:

  • আপনার সিভি
  • কভার লেটার
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা সনদ এর কপি
  • কাজের অভিজ্ঞতা সনদ (যদি থাকে)

এই কাগজ গুলো আপনার রেডি করে নিবেন। অভষ্যই আপনারা এই কাগজ গুলো প্রফেশনাল ভাবে তৈরি করে নিবেন। তারপর আপনার জব সাইট এ গিয়ে জব এ এপ্লাই করা শুরু করবেন। অভষ্যই আপনাকে ধৈর্য নিয়ে আবেদন করতে হবে। কারন এখানে জব এর জন্য পুরো পৃথিবী থেকে হাজার হাজার মানুষ আবেদন করে। তাই একটি জব অফার লেটার আনতে শত শত অনেক সময় হাজার হাজার এপ্লই করা লাগে।

আপনাদের যাদের কাজ এর অভিজ্ঞতা আছে তারা তাদের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী জব এর জন্য আবেদন করতে পারেন। যাদের কোন অভিজ্ঞতা নেই তারা চাইলে নরমাল যে কাজগুলো আছে সেই কাজ গুলো তে আবদেন করতে পারেন। যেমন হোটেল এর কাজ বা প্যাকিং এর কাজ।

আপনি যদি একটা জব অফার লেটার আনতে পারেন তাহলে বাকি কাজ গুলো অনেক সহজ হয়ে যাবে। তাই এই কাজটা আপনাকে সময় নিয়ে করতে হবে। আপনি যদি একটা জব অফার লেটার আনতে পারেন তাহলে অনেক সময় আপনার বাকি যে কাজগুলো আছে সেগুলোর অধিকাংশ কম্পানি করে দেয়। আবার অনেক সময় নিজেকে ও করতে হয়।

কানাডা জব ভিসা ২০২৪

আপনি যদি একটি জব অফার পেয়ে যান। তাহলে আপনাকে ওয়ার্ক পারমিট এর জন্য আবেদন করতে হবে। এরপর ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। ভিসা পেয়ে গেলে বিমান এর টিকিট কেটে কানাডায় চলে যাবেন। আপনি যদি সবগুলো কাজ নিজে নিজে করতে পারেন। তাহলে আপনার কত খরচ হবে। যদি ওয়ার্ক পারমিট কম্পানি আপনাকে দেয় তাহলে আপনার খরচ হবে মাএ ২/৩ লক্ষ টাকা। আর যদি ওয়ার্ক পারমিট আপনাকে করতে হয় সেক্ষেত্রে খরচ টা আরো ১/২ লক্ষ টাকা বেড়ে যাবে।

অনেক সময় এর থেকে কম খরচে ও কম্পানির সাহায্য নিয়ে কানাডায় চলে যাওয়া যায়। সবকিছু ডিপেন্ড করে আপনার যোগ্যতা আর আপনার ভাগ্য এ উপর। আপনি কতটা পরিশ্রম করতে পারেন এটার উপর ও অনেক কিছু ডিপেন্ড করে।

 কানাডায় বেতন বা ইনকাম কত টাকা। 

কানাডা এর জীবন যাএার মান অনেক উন্নত। এখানে আপনাকে চলতে হলে মাসে প্রয় লক্ষ টাকা খরচ ই হবে। কানাডায় বেতন ও অনেক বেশি। এখানে যারা নতুন নরমাল কাজ করেও মাসে মিনিমাম দুই লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কাজ অনুযায়ী বেতন এর থেকে আরো বেশি হতে পারে। কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024 এ যাওয়ার আগে আপনাকে এই বিষয় গুলো জানতে হবে।

কানাডায় যেতে কি কি লাগে। 

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা 2024 এ কানাডায় যেতে হলে আপনার জব লাগবে আর ওয়ার্ক পারমিট ও ভিসা। এই কথা টা তো বুঝতে পারছেন। এছাড়া আপানার কাজ জানতে হবে এবং আপনাকে ভেসিক ইংরেজি জানতে হবে। আর যদি ভালো কোন কাজ এ যেতে চান অনেক সময় IELTS লাগে। আপনি যদি কানাডায় যেতে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার প্রতি অনুরোধ রইল আরো বেশি রিচার্জ করার। ভালো থাকবেন সবাই আল্লাহ হাফেজ।

আরো পড়ুন: সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার উপায়

Leave a Comment