মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট। ডলার ইনকাম বিকাশ পেমেন্ট।

আসসালামু আলাইকুম। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট। ডলার ইনকাম বিকাশ পেমেন্ট। আজকে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব কিভাবে আপনারা মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিংয়ের অনেকগুলো কাজ করা যায়। সেই কাজগুলো সম্পর্কে আজকে আপনাদের ধারণা দেবো যে কাজগুলো আপনি চাইলে শিখতে পারেন।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট। ডলার ইনকাম বিকাশ পেমেন্ট।

 

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট

কনটেন্ট রাইটিং এর কাজ করে ইনকাম। 

আপনারা জানেন যে দিন দিন কন্টেন্ট রাইটিং এর চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যেকটা কোম্পানি অনলাইনে তাদের কন্টেন্ট আপলোড করছে। কনটেন্ট রাইটিং এর কাজটা কিন্তু খুব সহজেই আপনি মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন। এর জন্য আপনারা চাইলে প্রথমে কনটেন্ট রাইটিং এর উপর বেসিক ধারণা নিয়ে নিতে পারেন। তারপর আপনারা মোবাইল দিয়েই চাইলে নিজের জন্য অন্য কারো জন্য কনটেন্ট লিখতে পারেন। বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে কনটেন্ট রাইটিং এর কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন।

Translation এর কাজ করে আয়।

ফাইবার আপওয়ার্ক সহ অনেক মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে ট্রান্সেলেশন এর কাজ পাওয়া যায়। এই কাজটাও কিন্তু খুব সহজে মোবাইল দিয়ে করা যায়। যারা একাধিক বাসায় পারদর্শী তাদের জন্য এই কাজটা করা সহজ হবে। তাদের কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

ওয়েবসাইট তৈরি করে ইনকাম।

মোবাইল দিও আপনি চাইলে ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে ব্লগ পোস্ট করতে পারবেন । ব্লগারসহ বিভিন্ন প্লাটফর্মে আপনি মোবাইল দিয়ে চাইলে ওয়েবসাইট তৈরি করে সব কাজ করতে পারবেন। আপনারা খুব সহজে গুগল এডসেন্স কিংবা অন্য এড নেটওয়ার্ক থেকে ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও চাইলে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন।

ভিডিও শর্ট তৈরি করে ইনকাম।

বর্তমান সময়ে ফেসবুক ও ইউটিউব এ ভাইরাল টপিক হচ্ছে ভিডিও শর্ট। আপনারা চাইলে খুব সহজে মোবাইল দিয়ে ভিডিও শর্ট তৈরি করতে পারবেন। প্রযুক্তির এই যুগে খুব সহজে আপনি মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট করতে পারবেন। দিন দিন মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিট করার অনেক পাওয়ারফুল অ্যাপ তৈরি হচ্ছে। এমনকি আপনি চাইলে মোবাইল দিয়ে মার্কেটপ্লেসেও ভিডিও এডিট এর কাজ করতে পারেন।

ই-বুক লেখা লিখে ইনকাম। 

দিন যত যাচ্ছে মানুষ অনলাইনে প্রতি বেশি আকৃষ্ট হচ্ছে। এখন আর মানুষ তার সাথে বই নিয়ে ঘুরে না এক মোবাইলেই তার সমস্ত বই থাকে। আপনি যদি মানুষের প্রয়োজনে একটি বইয়ের ইবুক তৈরি করতে পারেন সেটা বিক্রি করে আপনি চাইলে ইনকাম করতে পারবেন। এটা নির্ভর করে আপনি কতটা গুরুত্বপূর্ণ বই এবং কতটা বেশি মার্কেটিং করতে পারেন তার ওপর। আপনি যদি এই দুইটা কাজ ঠিক করতে পারেন তাহলে আপনি এই প্রফেশন থেকেও অনেক ভাল ইনকাম করতে পারবেন।

ফেসবুক মার্কেটিং করে ইনকাম।

ফেসবুক হচ্ছে পৃথিবীতে যত মার্কেটিং আছে তার মধ্যে অন্যতম পাওয়ারফুল একটা মার্কেটিং। আপনি চাইলে নিজের ব্যবসার জন্য ফেসবুক মার্কেটিং করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে ক্লায়েন্টদের জন্য ফেসবুক মার্কেটিং করে দিতে পারেন। ফেসবুকে অনেক ভাবে মার্কেটিং করা যায় এর জন্য আপনি চাইলে যে কোন প্ল্যাটফর্ম থেকে আগে ফেসবুক মার্কেটিং টা ভালো করে শিখে নেবেন। তারপর আপনি চাইলে নিজের একটা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দাঁড় করাতে পারবে অথবা মার্কেটপ্লেস থেকে কাজ করে ইনকাম করতে পারেন।

এখানে আমরা কয়েকটা পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করেছি। আপনি যদি এই পদ্ধতিগুলো থেকে ইনকাম করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে কাজগুলো শিখতে হবে। আপনি যখন এই বিষয়ে এনালাইসিস করা শুরু করবেন । এখন আপনি নিজে নিজে চাইলে অনেক নতুন ইনকাম করার পদ্ধতি উদ্ভাবন করতে পারবেন। যত স্মার্ট ভাবে আপনি কাজগুলো করতে পারবেন এবং যত সঠিকভাবে করতে পারবেন আপনার ইনকাম করার সম্ভাবনা ততটা বেশি থাকবে। যাদের বর্তমানে পিসি কেনার মত সামর্থ্য নেই তারা চাইলে এই কাজগুলো শিখতে পারেন। এই কাজগুলো করে আপনারা চাইলে ইনকাম শুরু করতে পারেন এবং পরবর্তীতে আপনি যদি সফল হতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনারা পিসি কিংবা আরও বড় কিছু কিনতে পারেন। একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন যে পরিশ্রম না করে হেরে যাওয়ার চাইতে পরিশ্রম করে চেষ্টা করে হেরে যাওয়া ভালো। ধন্যবাদ সবাইকে পোস্ট করার জন্য ভালো থাকবেন।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশ থেকে ইউরোপ যাওয়ার সহজ উপায়

Leave a Comment